তালাবদ্ধ দোকানে পুড়ে মরল শিশুটি
তালাবদ্ধ কাপড়ের দোকানে রাতে ঘুমিয়ে ছিল ১২ বছর বয়সী নাজমুল হোসেন ওরফে খোকন। হঠাৎ করে মধ্যরাতে দোকানের ভেতর আগুন দেখে চিত্কার করতে থাকে সে। কিন্তু দোকানটি তালাবদ্ধ থাকায় উদ্ধার করা যায়নি তাকে। ভেতরেই আগুনে পুড়ে মারা গেল শিশুটি। কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার ভারেল্লা উত্তর ইউনিয়নের কংশনগর বাজারে গতকাল শুক্রবার রাতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় শিশু নাজমুল মারা যায়। পরে দমকল বাহিনীর চারটি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে ছয় ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে নেয়। এ ঘটনায় বাজারের শতাধিক দোকানপাট ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান পুড়ে গেছে। নিহত নাজমুলের বাড়ি কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার গোপালনগর গ্রামে। তার বাবার নাম তারা মিয়া। আজ শনিবার সকালে ময়নাতদন্ত ছাড়া নাজমুলের লাশ গ্রহণ করে তার মা। এ সময় ছেলের লাশ দেখে কান্নায় ভেঙে পড়েন তিনি। পরে তাঁর হাতে নগদ ৬০ হাজার টাকা দেন বাজারের ব্যবসায়ীরা। কংশনগর বাজারের ব্যবসায়ীরা বলেন, শুক্রবার রাতে বাজারের কাপড়পট্টিতে ব্যবসায়ী আলী আহম্মদের কাপড়ের দোকানে আগুনের সূত্রপাত হয়। পরে আগুন বাজারের অন্য দোকানে ছড়িয়ে পড়ে। তেমনই এক দোকানের ভেতর আটকা পড়ে আগুনে পুড়ে মারা যায় দোকান কর্মচারী নাজমুল।